ফ্রিল্যান্সিং!

২০২০ সালে এসে এই শব্দ শুনেনি এমন মানুষ খুঁজে পাওয়া যাবেনা,
অনেকেই মনে করে ফ্রিল্যান্সিং মানেই ঘরে বসে লাখ লাখ টাকা ইনকাম করা।
ব্যাপারটা বলা যত সহজ করা ততটা সহজসাধ্য নয়।

ফ্রিল্যান্সিং মানে হল মুক্তপেশা যার মাধ্যমে আপনি ঘরে বসে অন্যের কাজ করে দিতে পারবেন ,ইন্ডিয়ার একজন লোক আপনাকে দিয়ে একটি কাজ সম্পন্ন করবে আর এটি হবে আউটসোর্সিং,

এখন বলি ফ্রিল্যান্সিং কেন সহজ নয়? কারণ একটি আপনি যদি ফ্রিল্যান্সিং করতে চান সবার আগে যেটি অর্জন করতে হবে সেটি হল “দক্ষতা” হ্যাঁ আপনাকে অবশ্যই কোনো না কোনো কাজে দক্ষ হতে হবেই।

কি কি বিষয়ে দক্ষতা অর্জন করবেন? ফ্রিল্যান্সিং মার্কেটপ্লেস গুলোতে শত রকমের কাজ পাওয়া যায়, বেশ উল্লেখযোগ্য হল ওয়েব ডিজাইন, গ্রাফিক্স ডিজাইন, এন্ড্রয়েড এপস ডেভেলপমেন্ট ইত্যাদি।

আজকের পর্বে আমি এমন কিছু এপস এবং ওয়েবসাইটের সন্ধান দিবো যেগুলোর সাহায্যে আপনি আপনার স্মার্টফোন দিয়েই কাজ শিখতে পারবেন এবং নিজের দক্ষতা অর্জন করতে পারবেন।

১. Programming Hero: বাংলাদেশের একজন জনপ্রিয় প্রোগ্রামার ‘ঝংকার মাহবুব’ যিনি আমেরিকার স্বনামধন্য প্রতিষ্ঠানে সিনিয়র ওয়েব ডেভেলপার হিসেবে কর্মরত আছেন।তার বানানো এই ‘Programming Hero’ এপস এর সাহায্যে আপনি সহজেই পাইথন প্রোগ্রামিং, ওয়েব ডিজাইন এবং এপস ডেভেলপমেন্ট শিখতে পারবেন।
গুগোল প্লে স্টোর থেকে ইন্সটল করে নিন ।

২. Solo learn: আরেকটি গুরুত্বপূর্ণ এপস হল ‘Solo learn’। ওয়েব ডিজাইন থেকে শুরু করে পাইথন, জাভা, রুবি ,মেশিন লার্নিং সব কিছুই সাজানো আছে এই এপস এর মধ্যে, তারউপর রয়েছে বিশাল অনলাইন কমিউনিটি,যেখানে আপনি এক্সপার্ট দের সাথে পরামর্শ করতে পারবেন,এবং কোর্স শেষে পাবেন সার্টিফিকেট।
প্লে স্টোরে পেয়ে যাবেন এই এপ্সটি।

৩. Web development made easy: এই এপ্সের সাহায্যে আপনি খুব সহজেই ওয়েব ডিজাইন শিখতে পারবেন এবং পাশাপাশি জনপ্রিয় সিএমএস ওয়ার্ডপ্রেস, জুমলা এসব সম্পর্কেও ধারণা লাভ করতে পারবেন।

৪. w3schools.com : ফ্রিতে ওয়েব ডিজাইন এন্ড ডেভেলপমেন্ট শেখার সবচেয়ে জনপ্রিয় সাইট হল এটি ,একদম ধাপে ধাপে টিউটোরিয়াল এর মাধ্যমে শেখানো হয়, সাথে রয়েছে ইন্টারেক্টিভ কিছু টেকনিক। ওয়েব ডিজাইনের পাশাপাশি এই সাইটে প্রোগ্রামিংও শেখা সম্ভব এবং শেষে রয়েছে সার্টিফিকেট

৫.Freecodecamp.org : ওয়েব ডিজাইন শেখার আরেকটি সহজ মাধ্যম হচ্ছে এই ওয়েবসাইট। সহজ সহজ কিছু টাস্কের মাধ্যমে আপনি শিখতে পারবেন ওয়েব ডিজাইনের ব্যাসিক থেকে ইন্টারমিডিয়েট পর্যন্ত। কোথাও বুঝতে সমস্যা হলে সাথে ভিডিও টিউটোরিয়াল সহ দেয়া থাকে।

আজ এই পর্যন্ত, ফ্রিল্যান্সিং যদি পেশা হিসেবে নিতে চান তাহলে মূলমন্ত্র হল নিজের দক্ষতা ঝালাই করা, তাই সময় নষ্ট না করে একটু একটু করে নিজের দক্ষতা অর্জন করে নিন!

1 COMMENT

  1. পোস্টটি ভালো হয়েছে কিন্তু আপনি পোস্টের টাইটেলে লিখেছেন মোবাইল ফ্রীল্যান্সিং কিন্তু পোস্টে এসে স্কিল ডেভেলপমেন্ট সম্পর্কিত সাজেশন দিয়েছেন। এর মধ্যে সামঞ্জস্যতা লক্ষ্য করা যায় না। আশা করি টপিকের সাথে মিল রেখে টাইটেল আর পোস্ট লিখবেন এখন থেকে। 🙂

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here